Logo
নোটিশ :
সারাদেশের জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাসভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগাযোগ: ০১৭০৭-৬৫৫৮৯৪    dailyekushershomoy@gmail.com
সংবাদ শিরনাম :
বরিশাল জেলা ফেব্রিকেটরস সভাপতি নিরব- সম্পাদক মেহেদী হাচান বিপুল ভোট এ জয় লাভ করে গ্রীন ভয়েস বরিশাল বিশ্বেবিদ্যালয়ের শাখার উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ। হিজলায় খাল বাধ দিয়ে মাছের ঘের নির্মাণ, বিপাকে কয়েক শত সাধারণ কৃষক ভাষাসৈনিক রেজাউল করিমের মৃত্যুতে নতুনধারার শোক হিজলায় গভীর নলকূপ থেকে হচ্ছে গ্যাস নির্গতঃ গ্রীন ভয়েস গৌরনদী উপজেলা শাখার উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ। বরিশালে করোনা সংক্রমন রোধে ডিসি জাকির হোসেনের মাস্ক বিতরণ মানারাত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করলেন বিএনএস সভাপতি মারুফ মল্লিক ইসি গঠনে নোংরামি করলে পতন নিশ্চিত – মোমিন মেহেদী প্রথমবার পিএসসি কোর্স সম্পন্ন করলেন ৩ পুলিশ কর্মকর্তা
ভোগ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে মালালা

ভোগ ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে মালালা

অনলাইন ডেস্কঃ

এবার ব্রিটিশ ‘ভোগ’ (ঠড়মঁব) ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদকন্যা হচ্ছেন পাকিস্তানের বহুল আলোচিত অধিকারকর্মী ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কারবিজয়ী মালালা ইউসুফজাই (২৩)। ম্যাগাজিনের জুলাই সংখ্যায় তাকে নিয়ে প্রচ্ছদ প্রতিবেদন করা হচ্ছে। এতে সাক্ষাৎকারে মালালা বলেছেন, অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে পড়ার সময় প্রতিটি মুহূর্তকে তিনি উপভোগ করেছেন। এ সময়ে তিনি ম্যাকডোনাল্ডে ঢুঁ মেরেছেন, খেলেছেন পোকার। তবে বার্মিংহামে পড়াশোনাকালে খ্যাতি তাকে অনেক ভুগিয়েছে।

মালালা জানিয়েছেন, লোকজন আমাকে দেখলেই জানতে চাইত এমা ওয়াটসন অথবা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি অথবা বারাক ওবামার সঙ্গে সাক্ষাৎ কেমন ছিল। কিন্তু আমি জানতাম না কি বলতে হবে। তবে মালালা স্পষ্ট করে বলেছেন, ‘একটা কথাই বলতে চাই-প্রত্যেকের সংস্কৃতির মধ্যে থেকেও নিজস্ব কণ্ঠস্বর প্রকাশ করতে পারলে তবেই বৈষম্যহীন পরিবেশ তৈরি করা সম্ভব’।

লাল-সাদা-নীল তিন রঙের পোশাকে সেজে ভোগ-এর প্রচ্ছদকন্যা হচ্ছেন মালালা। একদম নিখাদ পাকিস্তানি কন্যার সাজেই সেখানে দেখা যাবে তাকে। পরনে সালোয়ার-কামিজ, মাথা ওড়না দিয়ে ঢাকা। কোনো কিছুতেই নিজের শিকড়ের টান ভোলেন না অক্সফোর্ডের এই কৃতী ছাত্রী। ভোগ ম্যাগাজিনের এডিটর এডওয়ার্ড জানান, ‘আমি যাদের মন থেকে অনুসরণ করে চলি, সেই তালিকায় একদম উপরে রয়েছেন মালালা ইউসুফজাই’। ২০১২ সালে তালেবানের চোখরাঙানিকে পাত্তা না দিয়ে নারী শিক্ষার প্রচার চালানোয় ১২ বছরের মালালার মাথায় স্কুলে ফেরার পথেই সরাসরি গুলি করেছিল সন্ত্রাসবাদীরা। কিন্তু ফিনিক্স পাখির মতোই নতুন জীবনীশক্তিতে ফিরে এসেছেন মালালা। গোটা বিশ্বকে তিনি শিখিয়েছেন, একজন শিক্ষার্থী, একজন শিক্ষক, একটা বই, একটা কলম এই বিশ্বকে বদলে দিতে পারে। মালালা পিছিয়ে পড়া বিশ্বে নারীশিক্ষা নিয়ে অক্লান্তভাবে কাজ করে চলেছেন। তবে আজও নিজের জন্মভূতিতে ফেরা হয়নি। তবে জঙ্গিদের চোখরাঙানির তোয়াক্কা তিনি কখনও করেননি, এখনও করেন না। তালেবানদের বিরুদ্ধে অধিকার আদায়ের লড়াইয়ের কারণে গোটা বিশ্ব মালালা ইউসুফজাইয়ের সাহসিকতাকে কুর্নিশ জানিয়েছিল। সন্ত্রাসবাদের চোখরাঙানিকে সেই ছোট বয়স থেকে চোখে চোখ রেখে মোকাবিলা করে চলেছেন তিনি। নারী শিক্ষা আন্দোলনের অন্যতম কান্ডারি মালালার বয়স এখন ২৩ বছর। গত বছর অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে দর্শন, রাজনীতি ও অর্থনীতিতে ডিগ্রি অর্জন করেছেন তিনি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *